প্রকাশ: ০৫:৫৯:০০ পিএম, ০৫ মে ২০১৮
আমি ঝুঁকি নিতে ভয় পাই না: আলিয়া

বাংলার কন্ঠ ডেস্ক : অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। ২০১২ সালে স্টুডেন্ট অব দি ইয়ার সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক হয়। এরপর তিনি ভক্তদের উপহার দিয়েছেন বেশ কয়েকটি ব্যবসাসফল সিনেমা।

ক্যারিয়ারের শুরুতেই বাণিজ্যিক সিনেমার পাশাপাশি হাইওয়ে, উড়

হাইওয়ে, উড়তে পাঞ্জাব’র পর রাজি সিনেমাটি বেছে নেয়ার ক্ষেত্রে ঝুঁকি কিছুটা কী কম ছিল? এমন প্রশ্নের উত্তরে আলিয়া ভাট বলেন, ‘দিনশেষে সবকিছুই ঝুঁকিপূর্ণ। আমি ঝুঁকি নিতে ভয় পাই না। আপনাকে দেখতে হবে অভিজ্ঞতাটি ফলফসূ হলো কিনা। কিছু ক্ষেত্রে এটি হয়তো কাজে দিবে আবার অনেক সময় কাজে দিবে না। তবে দেখতে হবে একটি নির্দিষ্ট সময়ে এটি কেমন ব্যবসা করে। এ কারণে রাজি কেমন ব্যবসা করে এটি দেখার কৌতূহল রয়েছে। সিনেমার ট্রেইলার ভালো সাড়া ফেলেছে। এখন দেখতে চাই সিনেমাটিও দর্শকের কাছে একই রকম সাড়া পায় কিনা।’

আপনার কাছে এখন পর্যন্ত রাজি কি সবচেয়ে কঠিন সিনেমা? এর জবাবে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘এখন পর্যন্ত উড়তা পাঞ্জাব আমার কাছে সবচেয়ে কঠিন সিনেমা ছিল, তবে এখন রাজি সেটিকে ছাড়িয়ে গেছে। আবার রয়েছে কলঙ্ক সিনেমাটি। মানসিক চাপের কারণে উড়তা পাঞ্জাব কঠিন ছিল। এদিকে রাজি সিনেমাতে দর্শকের সামনে আমাকে চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে হয়েছে। অন্যদিকে কলঙ্ক সিনেমাতে আমার চরিত্রে কয়েকটি স্তর রয়েছে। প্রতিদিন বসে বসে আমি সেগুলো গণনা করি। যতই সিনেমা করছি আমার জীবন ততই কঠিন হচ্ছে।’ 

১৯৭১ সালের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত হয়েছে এই সিনেমা। এতে আলিয়া ভাটকে সাহসী ভারতীয় গুপ্তচরের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে। যার জন্মস্থান কাশ্মীর এবং পরবর্তীতে পাকিস্তানের এক সেনা কর্মকর্তার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। এই সেনা কর্মকর্তার ভূমিকায় রয়েছেন ভিকি কৌশল।

হরিন্দার সিক্কার ‘কলিং সেহমাত’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটি। ভারতের পাঞ্জাব, কাশ্মীর এবং মুম্বাইয়ে সিনেমাটির দৃশ্যধারণ করা হয়েছে। সিনেমাটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছে জংলী পিকচার্স এবং ধর্মা প্রোডাকশন।

রাজি সিনেমার পরিচালক বলিউডের জনপ্রিয় লেখক গুলজারের মেয়ে মেঘনা গুলজার। এর আগে ফিলহাল, তলওয়ার নির্মাণ করে বেশ প্রশংসা পেয়েছেন তিনি। আগামী ১১ মে মুক্তি পাবে রাজি সিনেমাটি।

বাংলার কন্ঠ/০৫ মে ২০১৮/এ এইচ